Begum Hazrat Mahal National Scholarship 

Begum Hazrat Mahal National Scholarship এর জন্য কেমন করে আবেদন করবেন ?

রাজ্য সরকার এবং কেন্দ্র সরকার উভয় নারী শিক্ষা বিস্তারের উদ্দেশ্যে গ্রহণ করেছে বেশকিছু গুরুত্বপূর্ণ প্রকল্প । পশ্চিমবঙ্গ সরকার এর নারী শিক্ষা প্রকাশের উদ্দেশ্যে গৃহীত কয়েকটি প্রকল্প Kanyashree Prakalpa , Bigyani Kanya Medha Britti , Rupashree Prakalpa ইত্যাদি। ঠিক একইভাবে কেন্দ্র সরকারের পক্ষ থেকে নারী শিক্ষা বিস্তার এর উদ্দেশ্যে প্রদান করা হয় Begum Hazrat Mahal National Scholarship। আজকের আলোচ্য বিষয় Begum Hazrat Mahal National Scholarship

Begum Hazrat Mahal National Scholarship  কী ?

Begum Hazrat Mahal National Scholarship হলো ভারতের বিভিন্ন রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল গুলিতে  বসবাসকারী সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের শুধুমাত্র দরিদ্র মেধাবী ছাত্রীদেরকে নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত বৃত্তি প্রদানের একটি অভিনব প্রকল্প। Begum Hazrat Mahal National Scholarship যা অন্য  Maulana Azad National Scholarship for Meritorious Girls belonging Minorities  নামেও পরিচিত। এই প্রকল্পটির সূচনা করেন ভারতের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী  (Late) Atal Bihari Vajpayee 03.05.2003 তারিখে National Conference of  Educational & Economic Development of Minorities প্রোগ্রামের মধ্যে যা নিউ দিল্লির বিজ্ঞান ভবনে আয়োজন করা হয়েছিল।

 

Scholarship Name Begum Hazrat Mahal National Scholarship 

 

Official Link
Starting Date

Apply Now

 

Last Date 30/11/21

Daily GK এবং Current Affair এর MCQ প্রশ্ন Practice করার জন্য ক্লিক করুন

Begum Hazrat Mahal National Scholarship   এর উদ্দেশ্য কি ?

যে সমস্ত সংখ্যালঘু পরিবারের ছাত্রীরা অতিরিক্ত অর্থাভাবের কারণে পড়াশোনা চালিয়ে যেতে পারে না তাদেরকে বৃত্তি প্রদানের মাধ্যমে পড়াশোনায় এগিয়ে নিয়ে যাওয়াই হলো এই প্রকল্পের প্রধান উদ্দেশ্য।

Begum Hazrat Mahal National Scholarship   এর জন্য কারা আবেদন করতে পারবেন ?

2011 সালের জনগণনা অনুযায়ী ভারতের যে সমস্ত রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে মুসলিম, শিখ , খ্রিস্টান , বৌদ্ধ , জৈন এবং পার্সি এই 6 টি ধর্মসম্প্রদায়গুলির অন্তর্গত সংখ্যালঘু সেই সমস্ত পরিবারের নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত ক্লাস গুলিতে পাঠরত শুধুমাত্র ছাত্রীরাই এই স্কলারশিপের জন্য আবেদন করতে পারবে।

Begum Hazrat Mahal National Scholarship  এর Distribution Process:-

National Commission for Minorities Act, 1992 এর দ্বিতীয় বিভাগে ভারতবর্ষের মধ্যে মুসলিম, শিখ, খ্রিস্টান, বৌদ্ধ, জৈন এবং পার্সি এই 6 টি ধর্ম সম্প্রদায় কে সংখ্যালঘু হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। ভারতের যে সমস্ত রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল গুলি তে উপরোক্ত 6টি ধর্মসম্প্রদায় সংখ্যালঘু সেই সমস্ত পরিবারের সমস্ত ছাত্রীদেরকে এই স্কলারশিপটি প্রদান করা হবে। তবে প্রতিটি রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের জনসংখ্যা অনুযায়ী নির্দিষ্ট পরিমাণ সংখ্যালঘু ছাত্রীদেরকে এই স্কলারশিপের জন্য গ্রাহ্য করা হবে। যদি কোন রাজ্যে জনসংখ্যার অনুপাতে নির্দিষ্ট সংখ্যক সংখ্যালঘুর ছাত্রীর কম সংখ্যা থাকে তবে পার্শ্ববর্তী রাজ্য থেকেও আবেদন গ্রহণ করা হবে।

Pre Matric Scholarships Scheme for Minorities এর জন্য কেমন করে আবেদন করবেন ?

Begum Hazrat Mahal National Scholarship  এর Selection Process:-

বিগত পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বর এর উপর এবং প্রার্থীদের পরিবারের বার্ষিক আয় এর উপর ভিত্তি করে স্কলারশিপের জন্য যোগ্য প্রার্থীদের নির্বাচন করা হবে। বিগত পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বর এর উপর ভিত্তি করে মেরিট লিস্ট প্রকাশ করা হবে বলে জানিয়েছে স্কলার্শিপ বোর্ড।

Begum Hazrat Mahal National Scholarship  এর Scholarship Amount :-

নবমদশম শ্রেণীর ছাত্রীরা প্রত্যেক বছর 5000 টাকা করে এবং একাদশদ্বাদশ শ্রেণীর ছাত্রীরা প্রতি বছরে 6000 টাকা করে পাবে এই স্কলারশিপের মাধ্যমে।

Begum Hazrat Mahal National Scholarship  এর (Eligibility Criteria )প্রয়োজনীয় যোগ্যতা :-

  • আবেদনকারীকে অবশ্যই মুসলিম/শিখ/ খ্রিস্টান/বৌদ্ধ/জৈন অথবা পার্সি এই ধর্ম সম্প্রদায়ভুক্ত হতে হবে।
  • নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত সংখ্যালঘু পরিবারের ছাত্রীরা যারা তাদের বিগত পরীক্ষায় 50% নম্বর নিয়ে উত্তীর্ণ হয়েছে তারা সকলেই আবেদন করতে পারবে।
  • আবেদনকারীর পরিবারের বার্ষিক আয়ের 2 লক্ষ টাকার কম হতে হবে।
  • ছাত্রছাত্রীরা যদি সংখ্যালঘু শ্রেণীর কোন জন্য স্কলারশিপের অন্য আবেদন করে থাকে তবে এই স্কলারশিপটি তারা পাবে না।
  • SC/ST/OBC/Minority – কেন্দ্রীয় সরকারের এই চারটি স্কলারশিপ এর মধ্যে ছাত্রছাত্রীরা যে কোন একটি স্কলার্শিপ এ আবেদন করতে পারবে।
  • একটি নির্দিষ্ট পরিবার থেকে একই শ্রেণিতে পাঠরত সর্বোচ্চ 2 জন ছাত্রীকে এই স্কলারশিপ দেওয়া হবে; তবে বিদেশে পড়াশোনা করার জন্য কোনরকম স্কলারশিপ দেওয়া হবে না ।

Post Matric Scholarship Scheme for Minorities এর Application Process, Eligibility Criteria সহ অন্যান্য  তথ্য জানুন

বিশেষ দ্র্টব্য :-

স্কলার্শিপ এ আবেদনের সময় সকলকে কয়েকটি বিষয় মাথায় রাখতে হবে। যেমন-

  • ছাত্রীরা যদি নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত কোন একটি শ্রেণীতে পড়াশোনা বন্ধ করে তবে তারা এই স্কলারশিপটি পাবে না।
  • নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে আবেদন না করলে আবেদনপত্র গ্রাহ্য করা হবে না।
  • যদি এরকমটা দেখা যায় যে কোন প্রার্থী ভুল তথ্য বা ভুল সার্টিফিকেট দিয়ে আবেদন করেছে তবে তৎক্ষনাত তার স্কলারশিপটি বন্ধ করে দেওয়া হবে।
  • যদি কোন আবেদনকারী বিদ্যালয় এর নিয়মাবলী লংঘন করে অথবা স্কলারশিপের কোনো নিয়ম-কানুন না মেনে চলে তবে তাদের স্কলার্শিপ বাতিল হয়ে যাবে।

Begum Hazrat Mahal National Scholarship  এর Application Process :-

Begum Hazrat Mahal National Scholarship এর জন্য পূর্বে  Maulana Azad Education Foundation এর অফিশিয়াল ওয়েবসাইট –   “www.maef.nic.in” মাধ্যমে আবেদন করা যেত। তবে বর্তমানে এই স্কলার্শিপটিকে National Scholarship Portal (NSP) পোর্টাল এর আওতায় নিয়ে আসা হয়েছে। তাই বর্তমানে  www.scholarships.gov.in  এই ওয়েবসাইটটির মাধ্যমেও  Begum Hazrat Mahal National Scholarship এর জন্য আবেদন করতে পারবেন ।

Important Documents Begum Hazrat Mahal National Scholarship  এ আবেদনের জন্য :-

  • আবেদনকারীর এক কপি ছবি ।
  • শিক্ষা প্রতিষ্ঠান Verification Certificate
  • 18 বছর বয়স অতিক্রান্ত প্রার্থীদের জন্য স্বাক্ষরিত একটি Community Certificate এবং অন্যান্যদের জন্য পিতা-মাতার দ্বারা স্বাক্ষর করা Community Certificate
  • রাজ্য সরকার বা কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের উপযুক্ত কর্তৃপক্ষ কর্তৃক প্রদান করা একটি Income Certificate
  • বিগত পরীক্ষার Marksheet
  • শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ভর্তির ফি এর রশিদ।
  • Residential/Domicile সার্টিফিকেট।
  • Bank Passbook
  • Aadhaar Card

এবার Swami Vivekananda Merit cum Means Scholarship পান মাত্র 60 % নম্বরেই , জানুন বিস্তারিত

Begum Hazrat Mahal National Scholarship  এর Renewal:-

বৃত্তি প্রক্রিয়াটি রিনিউ করার জন্য কোনরকম আবেদনপত্র গ্রহণ করা হবে না। যেহেতু নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত সকলের জন্য এই স্কলারশিপটি উন্মুক্ত তাই প্রতিটি ক্লাসেই আলাদা করে ছাত্রীদেরকে আবেদন করতে হবে।

Bank Account Related গুরুত্বপূর্ণ তথ্য Begum Hazrat Mahal National Scholarship এ আবেদনের জন্য :-

  • প্রথমে ব্যাংকের শাখার নামটি সাবধানে সিলেক্ট করে নিতে হবে।
  • এরপরে ব্যাংকের অ্যাকাউন্ট নম্বরটি সঠিক ভাবে দিতে হবে। ব্যাংকের শাখার নাম এবং IFSC কোড টি ব্যাংক কর্তৃপক্ষের থেকে যাচাই করে নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছে বোর্ড।
  • আবেদনকারীরা ব্যাংক থেকে ‘Know your Customer’ (KYC) এর স্ট্যাটাস চেক করতে পারে। সহজ ট্রানজাকশন এর জন্য ব্যাংক থেকে নিজেদের KYC করে নেওয়ার পরামর্শও দিয়েছে বোর্ড।
  • ছাত্র-ছাত্রীদের ব্যাংক একাউন্টটি অবশ্যই চালু থাকতে হবে।
  • ব্যাংক একাউন্টে টাকা ট্রান্সফারের কোন লিমিট না থাকলে ভালো হয়।
  • ছাত্র-ছাত্রীদের নিজেদের নামে ব্যাংক একাউন্ট অথবা পরিবারের কারও সঙ্গে জয়েন্ট একাউন্ট থাকলেও তারা আবেদন করতে পারবে।
  • ব্যাংক একাউন্ট সংক্রান্ত কোনো তথ্য ভুল হলে স্কলারশিপের আবেদনটি ব্যর্থ হতে পারে।

Vidya Lakshmi Portal এ Education Loan এর Interest Rest, Application Form, Process সহ অন্যান্য তথ্য জানুন

FAQ:-

 1. কোন কোন ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে Begum Hazrat Mahal National Scholarship  এর জন্য আবেদন করতে পারবেন?

ANS:- Begum Hazrat Mahal National Scholarship  প্রকল্পে অনলাইনে আবেদন জন্য দুইটি ওয়েবসাইট প্রদান করা হয়েছে :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *