Primary TET এর মাধ্যমে 1700 , Upper Primary তে 12000 পদে নিয়োগ ,কথাটি কত টা সত্যি ?

অবশেষে পশ্চিমবঙ্গে শিক্ষক নিয়োগ বিষয়ে মুখ খুললেন পশ্চিমবঙ্গের শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু। শিক্ষক বিভাগে বিপুল পরিমাণ নিয়োগ হতে চলেছে পশ্চিমবঙ্গে। চাকরী সংক্রান্ত কিছু মামলা বিচারালয়ে বিচারাধীন অবস্থায় রয়েছে, এই মামলাগুলির শুনানির পরবর্তীতেই পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন সরকারি ক্ষেত্রে নিয়োগ শুরু হয়ে যাবে।

পশ্চিমবঙ্গে সরকারি চাকরিতে নিয়োগের বিষয়কে কেন্দ্র করে নানান সময়ে চাকরিপ্রার্থীদের আন্দোলন-বিক্ষোভ মামলা প্রভৃতি বিষয় গুলি নজরে এসেছে। প্রায়শই পথ অবরোধ করে কিংবা সরাসরি নবান্ন অফিসের সামনে যুবক-যুবতীদের মিছিল দেখা গেছে। এই সমস্ত ঘটনাগুলির পরিপ্রেক্ষিতে পশ্চিমবঙ্গের চাকরিপ্রার্থীদের কে চাকরির আশ্বাস দেওয়ার জন্য সম্প্রতি পশ্চিমবঙ্গের বর্তমান শিক্ষা মন্ত্রী ব্রাত্য বসু ফেসবুক লাইভে আসেন এবং পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন সরকারি ক্ষেত্রে নিয়োগের বিষয়গুলি তুলে ধরেন। তিনি জানান পশ্চিমবঙ্গের প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে দুর্গাপুজোর পূর্বে চার হাজার শিক্ষক নিয়োগ হয়েছে এবং পুজো পরবর্তী সময়ে নতুন করে আরও 1700 প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ হবে। তিনি শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া টি কে চার ভাগে ভাগ করেছেন –

  • Primary TET
  • Upper Primary TET
  • মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকের শিক্ষক নিয়োগ
  • কলেজ সার্ভিস কমিশন এর মাধ্যমে কলেজের অধ্যাপক নিয়োগ।

Daily GK এবং Current Affair এর MCQ প্রশ্ন Practice করার জন্য ক্লিক করুন

আপার প্রাইমারি বিভাগে 12000 শূন্য পদ রয়েছে যেখানে অতি শীঘ্রই প্রার্থী নিয়োগ করতে চলেছে রাজ্য সরকার। এই বিষয়ে আদালতে একটি মামলা বিচারাধীন অবস্থায় রয়েছে, মামলাটির শুনানি ঘোষণা হওয়ার পরেই এই 12000  শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু হবে। এই বিষয়ে তিনি আরো জানান যে শিক্ষা দপ্তর কোন প্রকার চাকরি প্রদান করে থাকে না, শিক্ষা দফতরের অধীনস্থ প্রাথমিক শিক্ষা সংসদ ও স্কুল শিক্ষা আয়োগ চাকরির জন্য নিয়োগপত্র দেয়।

মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকের শিক্ষক নিয়োগের বিষয়ে তিনি জানান যে খুব শিগগিরই মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয় গুলোতে প্রায় 6000  শিক্ষক নিয়োগ হতে চলেছে। এই বিষয়ে শিক্ষা দপ্তর স্কুল পরিদর্শক দের কাছ থেকে শূন্য পদের তালিকা জানতে চেয়েছে।

তিনি  D.El.Ed শিক্ষার্থীদের প্রতি কিছু বার্তা দেন। সকল D.El.Ed শিক্ষার্থীদের ধারণা যে D.El.Ed প্রশিক্ষণ নিলেই বিদ্যালয় চাকরি পাওয়া সম্ভব। ব্রাত্য বসু জানান যে সকল D.El.Ed প্রশিক্ষণার্থীরাই যে চাকরি পাবে এমন কোন কথা নেই। চাকরির জন্য প্রথমে কাউন্সেলিং হবে। বিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করতে গেলে D.El.Ed প্রশিক্ষণ বাধ্যতামূলক, কিন্তু তাই বলে সকল D.El.Ed প্রশিক্ষনার্থীকেই চাকরি দেওয়া সরকারের পক্ষে সম্ভব নয়, তার জন্য আলাদা বাছাই প্রক্রিয়া রয়েছে। যদি 10 টি শূন্য পদ থাকে এবং তার জন্য 100 জন প্রার্থী আবেদন করে তবে সেই 100 জন প্রার্থীকে চাকরি দেওয়া কোনো সরকারের পক্ষেই সম্ভব নয়।

এবার Swami Vivekananda Merit cum Means Scholarship পান মাত্র 60 % নম্বরেই , জানুন বিস্তারিত

এদিন শিক্ষক নিয়োগের জন্য যেসব বিক্ষোভ এবং আন্দোলন হচ্ছে পশ্চিমবঙ্গে, সেসব ঘটনার বিরুদ্ধেও সোচ্চার হোন মাননীয় শিক্ষা মন্ত্রী। তিনি বলেন আন্দোলন করলেই যে চাকরি পাবেন, তারও কোনো নিশ্চয়তা নেই, আবার আন্দোলন না করলে যে চাকরি পাবেন না, এই বিষয়টিও সঠিক নয়। যেখানে বেকার যুবক-যুবতী রয়েছেন প্রায় 70- 80 হাজার সেখানে আন্দোলন করছেন মাত্র  100-200 জন। তিনি বলেনযারা আন্দোলন করছেন তারা চাকরির যোগ্য এবং যারা আন্দোলন করছেন না তারা চাকরির অযোগ্য – এই ধারনাটি সম্পুর্ন ভুল।

তিনি স্পষ্ট ভাবে বলেন যে এসব আন্দোলন বা প্রেস মিটিং করে কোন লাভ হবে না, অযথা সময় নষ্ট এবং সরকারি কাজে বাধা বিপত্তির সৃষ্টি হবে। পশ্চিমবঙ্গে সরকারি চাকরিতে অবশ্যই নিয়োগ হবে এবং তা যথেষ্ট স্বচ্ছতা সহকারে ও যোগ্যতার যাচাই করেই হবে। চাকরির জন্য কারা যোগ্য আর কারা অযোগ্য সেটা যাচাই প্রক্রিয়ার মাধ্যমেই জানা যাবে। অবশেষে শিক্ষামন্ত্রী এই বক্তব্য থেকে আমরা খুব সহজেই বুঝতে পারছি যে খুব শীঘ্রই হতে চলেছে Primary,Upper Primary সহ পূর্বোক্ত পদগুলির নিয়োগ প্রক্রিয়া ।
B.Ed Course Details (2021) এ Eligibility, Fees, Syllabus, Job, Salary, Admission ইত্যাদি জানুন

Leave a Comment

error

শিক্ষা জগৎ সহ চাকরি সংক্রান্ত সমস্ত আপডেট বাংলায় পাওয়ার জন্য ফলো করুন