National Overseas Scholarship

বিদেশে পড়ার ইচ্ছা ? National Overseas Scholarship (NOS) 2021-22 এর সম্বন্ধে  বিশদে জানুন

উচ্চ শিক্ষা লাভের উদ্দেশ্যে অনেকেরই স্বপ্ন থাকে ভিন দেশে পাড়ি দেওয়া কিন্তু ভারতবর্ষের সমস্ত ছাত্রের কাছে এই পদক্ষেপের প্রধান অন্তরায় হয়ে দাঁড়ায় অর্থ । ভারত সরকার এই ধরনের ছাত্রছাত্রীদের পড়াশোনা সাহায্য করার জন্য শুরু করেছে National Overseas Scholarship (NOS) Program  । আজ আমরা জানতে চলেছি National Overseas Scholarship (NOS) Program এর সামগ্রিক তথ্যসমূহ যা আপনার আবেদনের সময় প্রয়োজন পড়বে ।

National Overseas Scholarship (NOS) কী ?

Central Sector Scheme of National Overseas Scholarship হল কেন্দ্রীয় সরকার দ্বারা পরিচালিত একটি Scholarship প্রকল্প যেখানে তপশিলি জাতি এবং সমাজের অন্যান্য পিছিয়ে পড়া জাতির অন্তর্গত ছাত্র-ছাত্রীদেরকে বিদেশে উচ্চশিক্ষা লাভের জন্য বৃত্তি প্রদান করা হয়। এই Scholarship টি প্রদান করে থাকে ভারতের Ministry of Social Justice and Empowerment

 

Scholarship Name National Overseas Scholarship Official Link
Starting Date

Apply Now

 

 
Last Date 15/10/21

Daily GK এবং Current Affair এর MCQ প্রশ্ন Practice করার জন্য ক্লিক করুন

National Overseas Scholarship  প্রদান এর উদ্দেশ্য :-

The Central Sector Scheme of National Overseas Scholarship প্রদানের প্রধান উদ্দেশ্য হলো ভারতবর্ষে বসবাসকারী তফসিলি জাতি, Denotified উপজাতি এবং আধা-যাযাবর উপজাতি, ভূমিহীন কৃষি শ্রমিক এবং ঐতিহ্যবাহী কারিগর ইত্যাদি দরিদ্র সীমার অন্তর্বর্তী পরিবারের অন্তর্গত ছাত্রছাত্রীরা যাতে গ্রাজুয়েশন কমপ্লিট করার পরে বিদেশে গিয়ে মাস্টার্স ডিগ্রি পিএইচডি ডিগ্রির মত উচ্চ শিক্ষা লাভ করতে পারে তার জন্য অর্থ সাহায্য করা। এছাড়া এই স্কলারশিপের মাধ্যমে সেই সমস্ত পরিবারগুলি আর্থিক ও সামাজিক অবস্থার প্রভূত উন্নতি হবে।

National Overseas Scholarship  এর জন্য কারা আবেদন করতে পারবেন ?

i) তফসিলি জাতি, ii) Denotified উপজাতি এবং আধা-যাযাবর উপজাতি, iii) ভূমিহীন কৃষি শ্রমিক এবং ঐতিহ্যবাহী কারিগর প্রভৃতি সমাজের অনগ্রসর শ্রেণীর অন্তর্গত ছাত্র-ছাত্রী যারা গ্রাজুয়েশন ডিগ্রি সম্পন্ন করার পরে বিদেশের কোন উচ্চমানের বিশ্ববিদ্যালয়ে উচ্চশিক্ষা লাভ করতে ইচ্ছুক তারা এই স্কলারশিপের জন্য আবেদন করতে পারবে।

National Overseas Scholarship  এর Distribution Process:-

এই প্রকল্পের মধ্যে সমগ্র ভারত বর্ষ থেকে 100 জন প্রার্থীকে নির্বাচন করা হবে, যার মধ্যে 30 টি স্থান মহিলা প্রার্থীদের জন্য সংরক্ষিত থাকবে। এছাড়া বিভিন্ন ক্যাটাগরি অনুযায়ী স্লট ভাগ করা হয়েছে –

  • তফসিলি জাতি – 90
  • যাযাবর এবং আধা-যাযাবর উপজাতি – 06
  • ভূমিহীন কৃষি শ্রমিক এবং ঐতিহ্যবাহী কারিগর – 04

B. Ed Course Admission (2021) এ প্রয়োজনীয় যোগ্যতা, ফি , সিলেবাস সহ অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ তথ্য জানুন

National Overseas Scholarship  এর Selection Process :-

  • 2020- 21 শিক্ষাবর্ষে শুধুমাত্র সেই সমস্ত শিক্ষার্থীদের এই বৃত্তির জন্য নির্বাচন করা হবে যারা বিদেশের শীর্ষস্থানীয় 1000 টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে রেঙ্ক করা কোন একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তির প্রস্তাব পেয়েছে।
  • প্রার্থীদের যোগ্যতা নির্বাচনের প্রতিটি পর্যায়ে তারা যেই ইউনিভার্সিটি তে ভর্তি হতে চাইছে সেই ইউনিভার্সিটির QS Rank পর্যালোচনা করা হবে। যেই ইউনিভার্সিটির রেংক যত বেশি হবে, সেই ইউনিভার্সিটির অন্তর্গত ছাত্র-ছাত্রীদের স্কলারশিপের জন্য প্রথম সারিতে নির্বাচিত করা হবে।
  • নির্বাচনের সময় দুই বা ততোধিক প্রার্থীদের মধ্যে তাই হলে প্রথমে মহিলাদের জন্য সংরক্ষিত স্থান গুলি পূরণ করা হবে; এবং তারপরে ধীরে ধীরে বয়সের নিম্নক্রম (বড় থেকে ছোট) অনুসারে প্রার্থী নির্বাচন করা হবে।
  • যে সমস্ত প্রার্থীদের বিদেশের কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি নিশ্চিত হবে তাদেরকে এই বৃত্তি পত্রের একটি অস্থায়ী অ্যাওয়ার্ড দেওয়া হবে, এবং যাদের এখনো ভর্তি প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়নি তাদেরকে একটি অস্থায়ী আশ্বাস পত্র প্রদান করা।

National Overseas Scholarship  এর Scholarship Amount :-

ছাত্র-ছাত্রীদের বিদেশে পড়াশোনা করতে যা যা খরচ প্রয়োজন (পড়াশোনার খরচ, যাতায়াত খরচ, চিকিৎসা, পড়াশোনার জন্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী কেনা ইত্যাদি) সমস্ত খরচ গুলি এই Scholarship এর মাধ্যমে দেওয়া হয়। মেইনটেন্যান্স ফি – US Dollars 15,400/- প্রতিবছর এবং UK. Great Britain Pound 9,900/- প্রত্যেক বছর।

Pre Matric Scholarships Scheme for Minorities এর জন্য কেমন করে আবেদন করবেন ?

National Overseas Scholarship পাওয়ার জন্য Minimum Qualifications :-

  • শিক্ষাগত যোগ্যতা : যেসব ছাত্র ছাত্রীরা মাস্টার্স ডিগ্রির জন্য ভর্তি হতে চায় তাদের গ্রাজুয়েশনে 60 শতাংশ নম্বর নিয়ে উত্তীর্ণ হতে হবে এবং যারা পিএইচডি ডিগ্রি করতে চায় তাদেরকে মাস্টার্স ডিগ্রি তে 60 শতাংশ নম্বর নিয়ে উত্তীর্ণ হতে হবে।
  • আবেদনকারীর বয়স : একজন আবেদনকারীর বয়স 35 বছরের কম হতে হবে।
  • পরিবারের বার্ষিক আয় : একজন আবেদনকারীর পরিবারের বার্ষিক আয় 8 লক্ষ টাকার কম হতে হবে।
  • পরিবার গত শর্ত : একটি নির্দিষ্ট পরিবারের অন্তর্গত সর্বাধিক 2 জন সদস্য এই স্কলারশিপের জন্য আবেদন করতে পারবে। বিবাহিত পুরুষ প্রার্থীদের ক্ষেত্রে তাদের ভাই/বোন অথবা সন্তান-সন্ততির বয়স 18 বছরের কম হতে হবে। বিবাহিত মহিলাদের ক্ষেত্রে তাদের স্বামীর আয় এবং সন্তান সংক্রান্ত শর্ত গুলি আরোপ করা হবে না।

 National Overseas Scholarship  এর Application Process :-

এই Scholarship এর  বিজ্ঞাপনটি খবরের কাগজ কিংবা অন্য কোন মিডিয়ার মাধ্যমে নির্দিষ্ট সময়ে প্রচার করা হয়ে থাকে  এই বিজ্ঞাপনের মধ্যে Scholarship সংক্রান্ত সমস্ত তথ্য বিস্তারিত ভাবে দেওয়া থাকবে। এই বিজ্ঞাপন থেকে প্রার্থীরা Scholarship সম্পর্কে তাদের যোগ্যতা, স্বাচ্ছন্দ ইত্যাদি বিষয়ে সমস্ত তথ্য গুলি যাচাই করে নেওয়ার পরে Scholarship মন্ত্রালয়ের ওয়েবসাইটে গিয়ে আবেদন করতে পারবে। Scholarship ওয়েবসাইটের লিংক – “www.nosmsje.gov.in

Important Documents National Overseas Scholarship  এ আবেদনের জন্য :-

  • জন্মের প্রমাণপত্র,
  • গ্রাজুয়েশন/মাস্টার্স ডিগ্রির সার্টিফিকেট এবং মার্কশিট,
  • পরিবারের বার্ষিক আয়ের সার্টিফিকেট,
  • কলেজ ইউনিভার্সিটির অফার লেটার

D.El.Ed Course (2021) এ প্রয়োজনীয় যোগ্যতা,ফি,সিলেবাস সহ অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ তথ্য জানুন

National Overseas Scholarship  এ আবেদনের জন্য  কিছু Important Facts :-

  • 1 লা এপ্রিল 2020 থেকে এই আবেদনের পোর্টালটি চালু করা হবে এবং আগামী 30 দিন পর্যন্ত এই পোর্টালটি উপলব্ধ থাকবে।
  • শুধুমাত্র অনলাইন মাধ্যমে আবেদন গ্রহণ করা হবে। প্রথম চক্রের বাছাই প্রক্রিয়াতে উত্তীর্ণ প্রার্থীদেরই কেবলমাত্র স্কলারশিপের সুবিধাটি দেওয়া হবে।
  • যদি প্রথম পর্যায়ের বাছাই প্রক্রিয়া তে যথাযথ প্রার্থী উপলব্ধ না হয় তাহলে তিন মাস পর অর্থাৎ 1 জুলাই থেকে 30 শে জুলাই পর্যন্ত পুনরায় পোর্টালটি খুলে দেওয়া হবে। এভাবে 100 জন প্রার্থী পূরণ হওয়া পর্যন্ত তিন মাস পর পর পোর্টালটি চালু করা হবে।
  • যদি কোন প্রার্থীরা আবেদনপত্রটি অসম্পূর্ণ থাকে অথবা কোনো তথ্য ভুল হয়ে যায় তবে আবেদনটি প্রত্যাখ্যান করা হবে। পরবর্তীতে যদি আবার পোর্টালটি চালু করা হয় তবে এই প্রত্যাখ্যত ছাত্র-ছাত্রীরা সহ অন্যান্য সকলেই আবেদন করতে পারবে।
  • জার্মানি, কানাডা, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচিত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ভর্তির প্রস্তাব বাধ্যতামূলক।

Central Sector Scheme of National Overseas Scholarship এর Benefits (সুবিধা) গুলি কী কী ?

Central Sector Scheme of National Overseas Scholarship এর অন্তর্ভুক্ত ছাত্রছাত্রীরা নিম্নলিখিত সুবিধাগুলি পেয়ে থাকে –

  • টিউশন ফি,
  • মেইনটেন্যান্স ফি (US Dollars 15,400/- প্রতিবছর এবং Great Britain Pound 9,900/- প্রত্যেক বছর)
  • ভাতা
  • পোল ফি
  • ভিসা ফি
  • সরঞ্জাম ভাতা
  • চিকিৎসা বীমা প্রিমিয়াম ভাতা
  • ইকোনমি ক্লাসের এয়ার প্যাসেজ
  • স্থানীয় ভ্রমনের খরচ

Medhavi Scholarship 2021 কেমন করে আবেদন করবেন ? জানুন সমস্ত প্রয়োজনীয় তথ্য

National Overseas Scholarship  এর (Duration) টাকা কখন  এবং কোন  সময়ের জন্য দেওয়া হয় :- 

মাস্টার্স ডিগ্রির জন্য 3 বছর এবং Phd. ডিগ্রির জন্য সর্বাধিক 4 বছর পর্যন্ত এই স্কলারশিপটি প্রদান করা হয।

National Overseas Scholarship   আবেদনের জন্য  কিছু Important Terms and Conditions :-

  • প্রার্থীরা যদি কোন একটি কোর্স একবার করার পরে দ্বিতীয়বার বিদেশে সেই কোর্সটির জন্যই ভর্তি হতে চায় তবে তাকে স্কলারশিপের জন্য যোগ্যতা দেওয়া হবে না।
  • চাকুরীরত প্রার্থীদের কে তাদের সংস্থা হতে একটি “No Objection Certificate” (NOC) স্কলার্শিপ মন্ত্রণালয়ের কাছে প্রেরণ করতে হবে।
  • প্রার্থীদেরকে বিদেশে পড়াশোনা করার জন্য যথাযথ ভিসা গ্রহণ করতে। প্রার্থীরা যদি এই স্কলারশিপের মাধ্যমে বিদেশে আরো পড়াশোনা করতে চায় তবে তাদেরকে এমন ভিসা গ্রহণ করতে হবে যেখানে বিদেশে পড়াশোনা শেষ করার পরে আবার ভারতে ফিরে আসার শর্ত উল্লেখ থাকবে।
  • যে সমস্ত প্রার্থীরা আমেরিকার কোন বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি হতে চায় তাদেরকে – ‘J-1 VISA’ গ্রহণ করতে হবে।
  • আবেদনকারীকে একটি অঙ্গীকার পত্র জমা করতে হবে যে সে তার বিশ্ববিদ্যালয়কে অনুমতি দেবে বিদেশের সংস্থা,  ভারতীয় মিশন এবং স্কলার্শিপ মন্ত্রকের সাথে তথ্য ভাগ করে নেবে।
  • যে সমস্ত প্রার্থীরা ‘NOS Scheme’ এর শর্তাবলী পালন করবে না তাদেরকে স্কলারশিপের টাকা দেওয়া হবে না।
  • পড়াশোনা চলাকালীন যদি কোনো প্রার্থীরা বিবাহ করার সিদ্ধান্ত নেয় এবং তার স্ত্রী পুত্ররা পড়াশোনা চলাকালীন তার সঙ্গেই বিদেশে থাকে তবে তাদের সমস্ত দায়িত্ব, খরচ, পাসপোর্ট-ভিসা সম্পূর্ণ দায়িত্ব সেই প্রার্থীকে নিতে হবে।

Vidya Lakshmi Portal এ Education Loan এর Interest Rest, Application Form, Process সহ অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ তথ্য জানুন

FAQ :-

  1. কারা কারা এই National Overseas Scholarship এর জন্য আবেদন করতে পারবে ?

ANS:-i) তফসিলি জাতি ii) Denotified উপজাতি এবং আধা-যাযাবর উপজাতি iii) ভূমিহীন কৃষি শ্রমিক এবং ঐতিহ্যবাহী কারিগর।

  1. এই National Overseas Scholarship  এর জন্য নির্ধারিত যোগ্যতা গুলি কী কী ?

ANS:- আবেদনকারীদের পূর্বের পরীক্ষাতে 60% নম্বর নিয়ে উত্তীর্ণ হতে হবে এবং বিদেশের কোন বিশ্বস্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে মাস্টার্স ডিগ্রি Phd. ডিগ্রির জন্য ভর্তি হতে। আবেদনকারীর বয়স 35 বছরের কম হতে হবে এবং তাদের পরিবারের বার্ষিক আয়ের 8 লক্ষ টাকার কম হতে হবে।

     3.   National Overseas Scholarship   এর   প্রকল্পে কতগুলি স্লট রয়েছে ?

ANS:- Central Sector Scheme of National Overseas Scholarship এ মোট 100 টি স্লট রয়েছে।

    4. একটি পরিবারের কতজন সদস্য এই স্কলারশিপের জন্য আবেদন করতে পারবে ?

ANS:-  একটি পরিবার থেকে সর্বাধিক 2 জন সন্তান এই স্কলারশিপের আবেদন করতে পারবে। যদি স্লট ফাঁকা থাকে তবে উপযুক্ত যোগ্যতাসম্পন্ন একই পরিবারের তৃতীয় সন্তান এই স্কলারশিপের আবেদন করতে পারবে

   5. National Overseas Scholarship  এর   মেয়াদ কত বছর ?

 ANS:-  মাস্টার্স ডিগ্রির জন্য 3 বছর এবং Phd. ডিগ্রির জন্য সর্বাধিক 4 বছর পর্যন্ত এই স্কলারশিপটি দীর্ঘায়িত হবে।

  6. কিভাবে ভিসা পাওয়া যাবে ?

 ANS:-   উপযুক্ত ভিসা পাওয়ার জন্য প্রার্থী দূতাবাসে যেতে পারেন। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে, শুধুমাত্র ‘J-1 VISA’ গ্রহণ করা হবে।  ভারত সরকার ভিসা পাওয়ার জন্য সহায়তা করতে কোন প্রার্থীকে কোন পারিশ্রমিক প্রদান করবে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *